1. [email protected] : admi :
  2. [email protected] : admin admin : admin admin
  3. [email protected] : atayur :
  4. [email protected] : Author :
  5. [email protected] : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
  6. [email protected] : News Reporter :
মহাকাশ থেকে কাবার ছবি তুললেন নভোচারী, মুহূর্তেই ভাইরাল
বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:২৪ অপরাহ্ন

মহাকাশ থেকে কাবার ছবি তুললেন নভোচারী, মুহূর্তেই ভাইরাল

Desk Report
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন, ২০২০
  • ৩৫২ Time View

গত ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে অবস্থান করছেন হাজজা আল মানসুরী যিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রথম নভোচারী।

সেখান থেকে ম'ঙ্গলবার (০১ অক্টোবর) ইসলামের পবিত্রতম স্থান মসজিদ আল হারামের (কাবা) একটি ছবি ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করেছেন তিনি। এর আগে হাজজা আল মানসুরি তার এ মহাকাশ যাত্রায় স'ঙ্গে করে নিয়ে গিয়েছিলেন পবিত্র গ্রন্থ কুরআনের একটি কপি

ভূ-পৃষ্ট 'হতে প্রায় ৩৫০ কিলোমিটার উচ্চতায় অবস্থান করে মহাকাশ স্টেশন 'হতে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে তোলা মক্কার মসজিদ আল হারামের এ ছবি মুহূর্তেই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

পবিত্র নগরী মক্কা ও কাবার প্রতি শ্র'দ্ধা নিবেদন করে হাজজা এই ছবিটির ক্যাপশনে লিখেছেন ‘এটি এমন একটি জায়গা যা সারা বিশ্বের প্রতিটি মুসলমানের হৃদয়ে বাস করে এবং তারা এটির দিকে মুখ করেই সালাত আ'দায় করে।

উল্লেখ্য, আমিরাতের প্রথম সব মিলিয়ে ২৪০তম দর্শনার্থী নভোচারী হিসেবে হাজজা আল মানসুরি মহাকাশে গেছেন। আর মহাকাশে নভোচারী পাঠানোর তালিকায় ১৯তম দেশ হিসেবে নাম লিখিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, আরব দেশগু'লোর মধ্যে যা প্রথম।

আরো পড়ুন: বিপদ যত বড় হোক না কেন, আল্লাহর রহমত তার চেয়ে অনেক বড়: কাবার প্রধান ইমাম

বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে আলোচিত বি'ষয় হচ্ছে করো'নাভাই’রাস। দিনদিন এই ভাই’রাসে মৃ'তের সংখ্যা বে’ড়েই চলছে। সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে মৃ’ত্যু হয়েছে ৮ হাজার মানুষের। এরইমধ্যে আ’ক্রা'’ন্তের সংখ্যা ২ লাখ ছা’ড়িয়েছে।

এছাড়া চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৬৩ হাজার ৬৮৮ জন। ইতোমধ্যে এই ভাই’রাসে বাংলাদেশে একজনের মৃ’ত্যু হয়েছে। আ’ক্রা'’ন্ত হয়েছে ১৮ জন। এমতাবস্তায়, মসজিদে হারাম ও মসজিদে নববির প্রধান ইমাম শায়খ ড. আব্দুর রহমান সুদাইসি দিন দিন কাবা শরিফ ও মসজিদে নববি মুসল্লিহীন হয়ে যাওয়ায় আগেবপ্রবণ হয়ে পড়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তার আবেগমাখা প্রর্থণা সবার হৃদয়কে না’ড়া দিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ টুইটারে তিনি উল্লেখ করেন- – হে আল্লাহ! আপনার ঘর থেকে আমা'দের বি’চ্ছিন'্ন করবেন না।

– হে আল্লাহ! আমা'দের পাপের কারণে পবিত্র মসজিদের নামাজের জামাআত থেকে বঞ্চিত করবেন না। – হে আল্লাহ! আপনার কাছে আমা'দের আবার ফিরিয়ে নিন। – হে আল্লাহ! আমা'দের তাওবা কবুল করুন। – হে আল্লাহ! আমা'দের এবং মুসলিম উম্মাহকে সব ধরণের মহা'মা’রি ও দূ’রারো’গ্য ব্যা’ধি থেকে হেফাজত করুন।

কাবা শরিফের প্রধান ইমাম শায়খ আব্দুর রহমান আস-সুদাইসির আবেগঘন এ আহ্বানগু'লো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এভাবেই ওঠে এসেছে। আল্লাহর কাছে তিনি আরও আহ্বান করেন- – হে আল্লাহ! মুসিবত দিন দিন কঠিন থেকে ক’ঠিন হচ্ছে। চারদিক অ’ন্ধকার হয়ে আসছে।

তুমি ছাড়া আমা'দের ফরিয়াদ শোনার আর কেউ নেই হে আল্লাহ!, তুমি ছাড়া আর কে আছে? হে আল্লাহ! যার কাছে আমর'া সাহায্য চাইবো। – হে আল্লাহ! আমা'দের এ অবস্থার উপর দয়া করুন। আমা'দের অক্ষমতাগু'লো দূর করে আমা'দের ক্ষ'মা করুন। হে আল্লাহ! তুমিই আমা'দের অ'ভিভাবক

আরো পড়ুন: করো'নার বিরু'দ্ধে ‘ বিজয়’ ঘোষণা করলো ফ্রান্স !

প্রাণঘা'তী করো'না ভাইরাসে প্রথম জোয়ারে তছনছ ফ্রান্স ধীরে ধীরে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে। দীর্ঘ লকডাউনের পর স্বাভাবিক জীবনের ফিরতে শুরু করেছে দেশটির জনগণ; যদিও এখনো সংক্রমণ এবং মৃ'ত্যু থামেনি। এরমধ্যেই করো'নার বিরু'দ্ধে যু'দ্ধে ‘প্রথম বিজয়’ ঘোষণা করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো। রোববার টেলিভিশনে দেয়া ভাষণে এ ঘোষণা দেন তিনি।

এদিকে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রো বলেন, প্যারিসসহ গোটা ফ্রান্সকে আগামী সোমবার (১৬ জুন) গ্রিন জোনে পরিণত হবে অর্থাৎ সারাদেশে সতর্কতা সর্বনিম্ন করা হবে। এরফলে দেশটিতে ক্যাফে এবং রেস্টুরেন্টগু'লো সম্পূর্ণরূপে খুলতে পরবে।

ভাষণে ম্যাক্রো বলেন, এই প্যানডেমিকের বিরু'দ্ধে যু'দ্ধ শেষ হয়নি তবে আমি প্রথম জয়ের জন্য আনন্দিত।

অতিমা'রি মোকাবেলায় ফ্রান্স এবং ইউরোপকে অন্য দেশের উপর নির্ভরশীলতা কমানোর জন্যও কাজ করবেন বলে ঘোষণা দেন তিনি। বলেন, আমি চাই আমর'া যে শিক্ষা পেয়েছি সেটা যেনো কাজে লাগাতে পারি।

পরিসংখ্যান বি'ষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য মতে, প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ফ্রান্সে করো'না ভাইরাসে মোট আ'ক্রা'ন্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫৭ হাজার ২২০ জন। এরমধ্যে মা'রা গেছেন ২৯ হাজার ৪০৭ জন। আর সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ৭২ হাজার ৮৫৯ জন। গত চব্বিশ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন ৪০৭ জন করো'না রোগী শনাক্ত হয়েছেন আর মৃ'ত্যু হয়েছে ৯ জনের।

আরও সংবাদ

চীনে নতুন ৪৯ রোগী শনাক্ত, জে'লা কর্মকর্তা বহিষ্কার

চীনে নতুন করে ৪৯ করো'না রোগী শনাক্ত হয়েছে। সোমবার দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, এদের মধ্যে ৩৯ জন স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত হয়েছেন। স্থানীয় সংক্রমণের মধ্যে রাজধানী বেইজিংয়েই ৩৬ জন এবং হুবেই প্রদেশের ৩ জন।

এদিকে নতুন করে করো'না ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ব্যর্থ হওয়ায় দক্ষিণাঞ্চলীয় ফেংটাই জে'লার ডেপুটি হেড ঝৌ ইউকিংকে পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।
বেইজিং ডেইলির বরাতে অনলাইন সংবাদমাধ্যম সিজিটিএন জানিয়েছে, রাজধানী বেইজিংয়ে নতুন করে বেশি কিছু করো'না রোগী ধ’রা পড়ার পর এ সি'দ্ধান্ত আসে। ফেংটাই জে'লার জিনফেডি মা'র্কে'টের কিছু লোকের সংস্পর্শে আসার কারণে তারা সংক্রমিত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। জিনফেডি ফল, সবজি এবং মাংসের বড় বড় মা'র্কেট।

ঝৌ ছাড়াও জে'লার হুয়াসিয়াং শহরের পার্টি সেক্রেটারি ওয়াং হাউ এবং জিনফেডির কৃষি পণ্যের হোলসেল মা'র্কে'টের জেনারেল ম্যানেজার জং ইয়েলিনকেও বরখাস্ত করা হয়েছে। এ বি'ষয়ে অধিকতর ত'দন্ত বলছে বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত চীনে ৮৩ হাজার ১৮১ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। দেশটিতে মোট মৃ'ত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৬৩৪ জনের। নতুন করে ৪৯ জন শনাক্ত হলেও কেউ মা'রা যাননি।

আরো পড়ুন: ভারতে করো'না রোগীদের স'ঙ্গে পশুর চেয়েও খারাপ আচরণ করা হচ্ছে: সুপ্রিম কোর্টের তিরস্কার !

করো'না রোগীদের স'ঙ্গে পশুর চেয়েও খারাপ আচরণ করা হচ্ছে বলে দিল্লি সরকারকে তিরস্কার করেছেন ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট। পাশাপাশি রাজধানীতে করো'না আ'ক্রা'ন্তের সংখ্যা বাড়া নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করে দেশের শীর্ষ আ'দালত।

এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি। শুক্রবার বিচারপতিরা বলেন, করো'না রোগীদের স'ঙ্গে পশুর থেকেও খারাপ ব্যবহার করা হচ্ছে। একটি ক্ষেত্রে তো, একজন করো'না রোগীর দে'হ আবর্জনার স্তূপের মধ্যে পাওয়া গেছে। একের পর এক রোগী মা'রা যাচ্ছে কিন্তু কেউই তাদের সামান্যতম সাহায্য করার জন্য নেই।

পাশাপাশি দিল্লিতে কম সংখ্যক করো'না টেস্টের বি'ষয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকারের জবাব চেয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। ভারতে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করো'নায় আ'ক্রা'ন্তের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে। আর নতুন করে ৩৯৬ জনের মৃ'ত্যু হয়েছে।

দিল্লি সরকারকে প্রশ্ন করে সুপ্রিম কোর্ট বলে, যখন চেন্নাই ও মুম্বাই করো'না টেস্টের সংখ্যা প্রতিদিন ১৬ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১৭ হাজার করা হচ্ছে তখন কেন আপনার রাজ্যে এই পরীক্ষা দিনে ৭ হাজার থেকে ৫ হাজারে নেমে গেছে? কেন্দ্রের নির্দেশ ঠিকভাবে অনুসরণ না করায় আপ সরকারকে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয়।

‘দিল্লির পরিস্থিতি শোচনীয়, ভয়'ঙ্কর এবং উদ্বেগের। সেখানকার হাসপাতালগু'লোর পরিস্থিতিও অত্যন্ত খারাপ, এমনকী মৃ'তদে'হগু'লোকেও ঠিকভাবে রাখা হচ্ছে না। রোগীদের পরিবারকেও মৃ'ত্যুর খবর ঠিকমতো জানানো হচ্ছে

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
News Bulletin © All rights reserved 2021
Develper By ITSadik.Xyz