1. [email protected] : admi :
  2. [email protected] : admin admin : admin admin
  3. [email protected] : atayur :
  4. [email protected] : Author :
  5. [email protected] : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
  6. [email protected] : News Reporter :
করোনাভাইরাস: চীনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বাংলাদেশে!
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৮:০৭ অপরাহ্ন

করোনাভাইরাস: চীনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বাংলাদেশে!

Desk Report
  • Update Time : শনিবার, ২৭ জুন, ২০২০
  • ৮৭ Time View

করো'নাভাইরাস বা কোভিড-১৯ নিয়ে বিভিন্ন দেশ গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র ও চীনসহ কয়েকটি দেশ ইতিমধ্যে এই রোগের ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু করেছে। এর মধ্যে চীনা ভ্যাকসিন প্রথম ট্রায়াল সম্পন্ন করেছে। তাদের ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ট্রায়াল বাংলাদেশে 'হতে পারে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ শুক্রবার (২৬ জুন) এ তথ্য জানিয়েছেন। বাংলাদেশ হেলথ রিপোর্টার্স ফোরামের আয়োজনে ভার্চুয়াল কনফারেন্সে তিনি এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘চীনে আবি'ষ্কৃত করো'নাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ধাপের ট্রায়াল বাংলাদেশে 'হতে পারে। এই ট্রায়ালের সূত্র ধরে বাংলাদেশেও এর উৎপাদন শুরু 'হতে পারে। এটা বাংলাদেশের মানুষের জন্য করো'না মোকাবিলায় আরেক ধাপ সাফল্য বয়ে আনবে।’

ডা. আবুল কালাম আজাদ করো'না পরিস্থিতি নিয়ে বলেন, ‘আগে দেশে আ'ক্রা'ন্ত একজন থেকে আরও দু’জনের বেশি হারে এই ভাইরাস ছড়াতে পারত। কিন্তু এখন সেই রিপ্রডাকশন রেট বা আর-রেট নেমে এসেছে ১.০৫-এ। এটা খুবই ভালো লক্ষণ।

এখন নিচে নামাতে পারলে দুশ্চিন্তা অনেকটাই কমে যাব'ে। তাছাড়া এখনও প্রতিদিন সংক্রমণের যে সংখ্যা পাওয়া যাচ্ছে তা অনেকটা স্থিতিশীল অবস্থায় রয়েছে।’
এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩ হাজার ৮৬৮ জন করো'না আ'ক্রা'ন্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন।

এ নিয়ে দেশে মোট আ'ক্রা'ন্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ লাখ ৩০ হাজার ৪৭৪ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪০ জনের মৃ'ত্যুর মধ্য দিয়ে মোট মৃ'তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ হাজার ৬৬১ জনে।
এর আগে বৃহস্পতিবার সর্বশেষ তথ্যে বলা হয়েছিল, ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩ হাজার ৯৪৬ জন করো'না আ'ক্রা'ন্ত রোগী শনাক্ত হয়।

এ নিয়ে ওই দিন দেশে মোট আ'ক্রা'ন্তের সংখ্যা দাঁড়ায় ১ লাখ ২৬ হাজার ৬০৬ জনে। এছাড়া ২৪ ঘণ্টায় ৩৯ জনের মৃ'ত্যু হয়। এ মৃ'ত্যুর মধ্য দিয়ে মোট মৃ'তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ১ হাজার ৬২১ জনে।

শুক্রবার (২৬ জুন) দুপুরে করো'নাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদ'প্তরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এ তথ্য জানান সংস্থাটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।
দেশে একদিনে সর্বোচ্চ মৃ'ত্যুর রেকর্ড আছে ৫৩ জনের।

সে তথ্য জানানো হয় ১৬ জুনের বুলেটিনে। আর সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড আছে ৪ হাজার ৮ জনের। এ তথ্য জানানো হয় ১৭ জুনের বুলেটিনে।

বুলেটিনে বরাবরের মতো করো'নাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে মাস্ক পরা এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান ডা. নাসিমা।

বাংলাদেশে গত ৮ মা'র্চ প্রথম করো'না ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হলেও প্রথম মৃ'ত্যুর খবর আসে ১৮ মা'র্চ। দিন দিন করো'না রোগী শনাক্ত ও মৃ'তের সংখ্যা বাড়ায় নড়েচড়ে বসে সরকার। ভাইরাসটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য ২৬ মা'র্চ থেকে বন্ধ ঘোষণা করা হয় সব সরকারি-বেসরকারি অফিস।

কয়েক দফা বাড়িয়ে এ ছুটি ৩০ মে পর্যন্ত করা হয়। ছুটি শেষে করো'নার বর্তমান পরিস্থিতির মধ্যেই ৩১ মে থেকে দেশের সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলে দেয়া হয়। তবে বন্ধ রাখা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

এদিকে করো'নাভাইরাস বা কোভিড-১৯ এ যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে আ'ক্রা'ন্তের সব রেকর্ড ভেঙে গেছে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আ'ক্রা'ন্ত হয়েছেন ৪০ হাজার ৫০০ জন। করো'না মহা'মা'রি শুরু হওয়ার পর থেকে দেশটিতে এটি এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের সংখ্যা। এদিন মৃ'ত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪৩০ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম সিএনএন এর খবরে বলা হয়েছে, চলতি স'প্তাহে দেশটির গু'রুত্বপূর্ণ শহর টেক্সাস, আলাবামা, অ্যারিজোনা, ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডা, আইডাহো, মিসিসিপি, মিসৌরি, নেভাডা, ওকলাহোমা, দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়া ও ওয়াইমিং অ'ঙ্গরাজ্যে আবারও ভ'য়াবহভাবে করো'না শনাক্ত শুরু হয়েছে।

প্রকাশিত তথ্যে দেখা যাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ২৫ লাখেরও বেশি মানুষের করো'না শনাক্ত হয়েছে। সরকারি হিসেবে এর মধ্যে মৃ'ত্যু হয়েছে প্রায় ১ লাখ ২৬ হাজার মানুষের। সেরে উঠেছেন সাড়ে ১০ লাখ ৫২ হাজার। করো'নায় মৃ'ত্যু ও শনাক্তের দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্র সারা বিশ্বের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে। সুত্র: সময় টিভি

পার্লামেন্টে লাদেনকে “শ’হীদ” বলে তীব্র সমালোচনার মুখে ইমর'ান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমর'ান খান দেশটির পার্লামেন্টে দেওয়া ভাষণে আন্তর্জাতিক জ'ঙ্গিগোষ্ঠী আল কায়েদার সাবেক প্রধান ওসামা বিন লাদেনকে ‘শ’হীদ’ বলে উল্লেখ করেছেন।

বৃহস্পতিবার ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে পাকিস্তানের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বি'ষয় নিয়ে দীর্ঘ ভাষণে তিনি এই মন্তব্য করেছেন বলে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন-এর প্রতিবেদনে জানা গেছে।

২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাব'োটাবাদে ওসামা বিন লাদেন যুক্তরাষ্ট্রের স্পেশাল ফোর্স দ্বারা নি'হত হওয়ার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের স'ঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্কে যে অবনতি হয়েছে সে বি'ষয়ে কথা বলছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি বলেন, আমেরিকানরা অ্যাব'োটাবাদে এল এবং লাদেনকে মেরে ফেলল। শ’হীদ করল তাকে।

তার এ বিতর্কিত বক্তব্যের পরই শুরু হয় তুমুল সমালোচনা। দেশটির সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা আসিফ তার এ বক্তব্যের বিরোধিতা করে পার্লামেন্টকে বলেন, “আজকে ওসামা বিন লাদেনকে ‘শ’হীদ’ বলে ইতিহাসের স'ঙ্গে মশকরা করলেন ইমর'ান খান।”

এ বি'ষয়ে একজন পাকিস্তানি অধিকারকর্মী টুইটারে লিখেছেন, “সাম্প্রতিক স'ন্ত্রাসবাদের কারণে আজ বিশ্বে চরম ভুগছে মুসলিমর'া এবং ওবিএলকে (ওসামা বিন লাদেন) ‘ইসলামের শ’হীদ’ বলে এ সমস্যাকে আরও তীব্র করলেন।’

২০১১ সালের ২ মে রাতে অ্যাব'োটাবাদে যুক্তরাষ্ট্রের স্পেশাল ফোর্সের হাতে নি'হত হন আল-কায়েদার প্রতিষ্ঠাতা ওসামা বিন লাদেন।

তবে পাকিস্তানে লাদেন থাকার বি'ষয়টি তারা জানত না বলে আনুষ্ঠানিকভাবে জানায় পাকিস্তান। এ ঘটনার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের স'ঙ্গে পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের চরম অবনতি হয়। কেননা যুক্তরাষ্ট্রের ৯/১১-এ টুইন টাওয়ারে হা'মলার জন্য দায়ী করা হয় ওসামা বিন লাদেনকে।

পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার-সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্সের (আইএসআই) সাবেক প্রধান আসাদ দুরানি ২০১৫ সালে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরাকে বলেছিলেন, পাকিস্তানে লাদেনের উপস্থিতির বি'ষয়টি জানত আইএসআই এবং তাকে মধ্যস্থতাকারী হিসেবে ব্যবহার করতে চেয়েছিল পাকিস্তান।

এর আগে ২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্র সফরে ইমর'ান খান দাবি করেছিলেন, লাদেনের বি'ষয়ে ওয়াশিংটনকে তথ্য দিয়ে সাহায্য করেছে আইএসআই এবং পরে তাকে হ'ত্যা করা হেছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
News Bulletin © All rights reserved 2021
Develper By ITSadik.Xyz