1. [email protected] : admi :
  2. [email protected] : admin admin : admin admin
  3. [email protected] : atayur :
  4. [email protected] : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
  5. [email protected] : News Reporter :
‘হাওয়া’ নিয়ে নকলের অভিযোগ, মুখ খুললেন নির্মাতা
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৫:৫৩ অপরাহ্ন

‘হাওয়া’ নিয়ে নকলের অভিযোগ, মুখ খুললেন নির্মাতা

Desk Report
  • Update Time : সোমবার, ১ আগস্ট, ২০২২
  • ৪ Time View

চৌধুরী অ'ভিনীত ‘হাওয়া’ সিনেমাটি মুক্তির পূর্বেই এরইমধ্যে সারা দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি করেছে নানান কারণে। নির্মাতা মেজবাউর রহমান সুমনের প্রথম সিনেমা এটি । মুক্তি পেয়েছে গত ২৯ জুলাই। দেশের ২৪টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির পর বেশিরভাগ হলে টানা হাউজফুল চলছে সিনেমাটি। অগ্রিম টিকিট বিক্রিতেই গড়েছিল রেকর্ড। দর্শকের চাপে এখনো অধিকাংশ হলে টিকিট সংকট চলছে। কিন্তু ছবি মুক্তির পরেই অনেকেই তুলেছেন নকলের অ'ভিযোগ।

অনেকেই মনে করছেন, কোরীয় ছবি ‘সি ফগ’র সাথে ‘হাওয়া’র মিল আছে। ২০১৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল কোরিয়ান ভাষার ছবি ‌‘সি ফগ’। নির্মাণ করেছিলেন সাং বু শিম। ছবির কাহিনীতে দেখানো হয়, চীন থেকে কোরিয়াতে অবৈ'ধ মানবপাচারের জন্য ভাড়া করা হয় মাছ ধ’রার নৌকা। কিন্তু প্রতিকূল আবহাওয়াসহ নানা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ে সেই নৌকা। তবে ‘সি ফগ’ নকল করে ‘হাওয়া’ নির্মাণের অ'ভিযোগ অস্বীকার করেছেন মেজবাউর রহমান সুমন। ‘হাওয়া’র নির্মাতা বলেন, যারা এই দাবি তুলেছেন মনে হয় তারা আমা'র সিনেমাটি দেখেননি। তাদের বলব, আপনারা আগে আমা'র সিনেমাটি দেখে, মিলিয়ে তারপর এরকম দাবি তুলুন। আমি আগে থেকেই জোর গলায় বলে আসছি এটা এ অঞ্চলের গল্প। এখনও বলব এটা আমা'দের ছবি। যারা নকল বলছেন তাদের প্রতি আমা'র আহ্বান, তারা দুটি সিনেমা পাশাপাশি রেখে দেখুক।

তিনি আরো বলেন, ছবি দুটির শুটিং সাগরে হয়েছে বলে অনেকে হয়ত এরকম ভাবছেন। তাদের ধারণা ভুল। সাগরে দৃশ্যধারণ করা হলেই তো আর সিনেমা এক হয় না। পৃথিবীতে সমুদ্রের গল্পে নির্মিত অসংখ্য চলচ্চিত্র আছে। আর যে সিনেমাটির কথা বলা হচ্ছে সেটা মানব পাচারের গল্পে নির্মিত হয়েছে। আমা'র সিনেমা'র স'ঙ্গে ওই ছবিটির কোনো মিল নেই। এটা খুবই হাস্যকর।

প্রস'ঙ্গত, তারকাবহুল এ সিনেমায় আরো অ'ভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, নাজিফা তুশি, শরিফুল রাজ, সুমন আনোয়ার, নাসির উদ্দিন খান, সোহেল মণ্ডল, রিজভী রিজু, মাহমুদ হাসান এবং বাবলু বোস। চিত্রগ্রহণ করেছেন কামর'ুল হাসান খসরু, সম্পাদনা সজল অলক, আবহ সংগীত রাশিদ শরীফ শোয়েব এবং গানের সংগীতায়োজন করেছেন ইমন চৌধুরী।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
News Bulletin © All rights reserved 2021
Develper By ITSadik.Xyz