1. [email protected] : admi :
  2. [email protected] : admin admin : admin admin
  3. [email protected] : atayur :
  4. [email protected] : Author :
  5. [email protected] : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
  6. [email protected] : News Reporter :
প্রতারণার দায়ে রেস্তারাঁ মালিককে ১,১৪৬ বছরের জেল!
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

প্রতারণার দায়ে রেস্তারাঁ মালিককে ১,১৪৬ বছরের জেল!

Desk Report
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই, ২০২০
  • ১০০ Time View

থাইল্যান্ডে গ্রাহকদের স'ঙ্গে প্রতারণা করার দায়ে এক রেস্তারাঁর দুই মালিককে ১,১৪৬ বছরের কারা'দ'ণ্ড দিয়েছেন আ'দালত।খবর বিবিসির। লায়েমগেট নামে দেশটির একটি সামুদ্রিক খাবারের রেস্তোরাঁ গত বছর অনলাইনে অগ্রিম অর্থ দিলে ছাড়ের সুযোগ দিয়ে খাওয়ার এক লোভনীয় অফার দেয়। প্রায় ২০ হাজার মানুষ অনলাইনে খাবারের ভাউচার কিনেন, যার মূল্য ছিল ৫ কোটি থাই বাথ (১৬ লাখ মা'র্কিন ডলার)। এত লোকের চাহিদা মেটাতে তারা অক্ষম এ ঘোষণা দিয়ে তারা রেস্তোরাঁট বন্ধ করে দেয়া হয়। খবর বিবিসির।

কয়েকশ’ মানুষ অ'ভিযোগ জানানোর পর রেস্তোরাঁর দুই মালিক আপিচার্ট বোওয়ার্নবানচারাক এবং প্রাপাস্যর্ন বোওয়ার্নবানচাকে গ্রে'ফতার করে পু'লিশ। থাইল্যান্ডে প্রতারণার অ'ভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হলে দীর্ঘ মেয়াদে কারা'দ'ণ্ড খুব অস্বাভাবিক ঘটনা নয়। বিশেষ করে যেখানে এত মানুষ অ'ভিযোগ জানিয়েছে। কিন্তু থাই আইনে জনগণের স'ঙ্গে প্রতারণার অ'ভিযোগে সর্বোচ্চ কারা'দ'ণ্ডের মেয়াদ বিশ বছর। অগ্রিম অর্থ নিয়ে গ্রহকদের কাছে রেস্তোরাঁটি গত বছর নানাধরনের ফুড ভাউচার বিক্রি শুরু করে।

প্রথম'দিকে যারা ভাউচার কিনেছিল, তারা ওই দামে রেস্তোরাঁটিতে খেতেও পেরেছিল। কিন্তু থাই সংবাদমাধ্যম পিবিএস জানায়, পরবর্তীতে অগ্রিম বুকিং করতে গেলে তাদের বলা হয় বুকিং পেতে কয়েক মাস পর্যন্ত অ'পেক্ষা করতে হবে। এরপর মা'র্চ মাসে লায়েমগেট ইনফিনিট হঠাৎ জানায় তারা ব্যবসা বন্ধ করে দিচ্ছে। কারণ চাহিদা মেটানোর জন্য যথেষ্ট সামুদ্রিক খাবার তারা সংগ্রহ করতে পারছে না। যেসব খদ্দের অগ্রিম ভাউচার কিনেছিল রেস্তোরাঁটি তাদের অর্থ ফিরিয়ে দেবে বলে জানায়। অ'ভিযোগ করা ৮১৮ জন গ্রাহকের মধ্যে ৩৭৫ জন তাদের অর্থ ফিরে পায়।

পরে আরও কয়েকশ’ মানুষ প্রতারণার অ'ভিযোগ দায়ের করে প্রতিষ্ঠান ও এর দুই মালিকের বিরু'দ্ধে। প্রতারণার মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অ'ভিযোগে তাদের সম্প্রতি গ্রে'ফতার করা হয়। আ'দালতে তারা ৭২৩টি ভিন্ন অ'ভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয় এবং তাদের দুজনকেই ১,৪৪৬ বছর করে কারা'দ'ণ্ডে দ'ণ্ডিত করা হয়। তবে তারা দোষ স্বীকার করায় আ'দালত তাদের সাজার মেয়াদ অর্ধেক কমিয়ে ৭২৩ বছর করে। থাই আইন অনুযায়ী তাদের ৭২৩ বছর করে জেল হলেও তাদের কারা'বাস করতে হবে সবোর্চ্চ বিশ বছর। থাইল্যান্ডের একটি আ'দালত ২০১৭ সালে এক প্রতারককে ১৩ হাজার বছরের কারা'দ'ণ্ড দিয়েছিল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
News Bulletin © All rights reserved 2021
Develper By ITSadik.Xyz