1. [email protected] : admi :
  2. [email protected] : admin admin : admin admin
  3. [email protected] : atayur :
  4. [email protected] : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
  5. [email protected] : News Reporter :
করোনা হিরো খোরশেদ এখন ঝুঁকিতে
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১২:৫৯ অপরাহ্ন

করোনা হিরো খোরশেদ এখন ঝুঁকিতে

Desk Report
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৭ মে, ২০২০
  • ৩১৮ Time View

গত দুইদিন ধরেই ফেসবুক লাইভে আসছেন মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। এখন আর তার নামের আগে পদবী যোগ করতে হয় না। কারণ খোরশেদ এখন স্থানীয়ের গন্ডি পেরিয়ে জাতীয়কেও পেছনে ফেলে আন্তর্জাতিকভাবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। ‘করো'না হিরো’ হিসেবেই খ্যাত খোরশেদ এখন নারায়ণগঞ্জের ব্রান্ডিং 'হতে চলেছেন। মিডিয়াজুড়ে তাঁকে নিয়ে মাতামাতি। কিন্তু হঠাৎ করে এক মর'ণঘা'তি ইস্যুতে যখন অনন্য উচ্চতায় খোরশেদ তখন তিনি রয়েছেন বেশ ঝুঁকিতে। দুইদিনের ফেসবুক লাইভে এসে খোরশেদের বক্তব্যেই উঠে আসে এ আশংকার কথা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও খোরশেদকে নিয়ে অতি মাতামাতি চলছে। এক শ্রেণির মানুষ খোরশেদকে এখন রাজনৈতিক ‘অ'স্ত্র’ হিসেবেও ব্যবহার করার চেষ্টা করছেন। দাঁড় করাতে চাচ্ছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমকক্ষ হিসেবে।

‘এ কথাটি কতটুকু সত্য’ প্রশ্ন তুলতেই খোরশেদ বলেন, ‘এগু'লো অতিরঞ্জিত। কোন কিছুর আশায় আমি এ কাজে নামিনি। বরং এক দুর্যোগে মানুষের পাশে দাঁড়াতেই কাজটি করেছি। হয়তো এ কারণেই মিডিয়াতে আমাকে নিয়ে একটু বেশী লেখালেখি হচ্ছে। কিন্তু এটাও বুঝতে হবে আমা'র গন্ডি সম্পর্কে। আমা'র সেই সক্ষমতা নাই জাতীয় মিডিয়ার পাশাপাশি টিভি চ্যানেল, বিবিসির মত সংবাদ মাধ্যমে নিজের সংবাদ প্রকাশ করা। আমা'র কাজকে প্রাধান্য দিয়েই এসব মিডিয়া ব্যক্তিত্বরা আমাকে নিয়ে সংবাদ করছেন, টক শো করছেন কিন্তু এতে আমা'র দোষ কোথায়। আমি তো তার পরেও কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।

৫ মে কথা হয় খোরশেদের স'ঙ্গে। বলেন, ‘আমি আসলে এখন চরম ঝুঁকিতে। চারদিকে ষ'ড়যন্ত্র। কাজ করলেও দোষ। না করলেও দোষ। জীবনের মায়া ছেড়ে যখন কাজ করছি তখন চারদিকে চলছে ষ'ড়যন্ত্র। কিন্তু আমি এসবকে পাত্তা দিচ্ছি না। কারণ রাজনীতিতে এসব মোকাবেলা করতে হয়েছে। তাই অভ্যস্ত।’

‘মিডিয়াতে আমা'র সংবাদের কারণে প্রচুর এলাকা থেকে ফোন এসেছে। কিভাবে লা'শ দা'ফন সৎকার করতে হয়ে করো'না আ'ক্রা'ন্তদের, আমা'র কাছ থেকে টিপস নিয়েছে। এতে তো অনেকের কাজে আসছে।’ বক্তব্যে যোগ করেন খোরশেদ।

খোরশেদ বলেন, আমি কি জানতাম আমা'র কাজ এত আলোচিত হবে?এত কভারেজ পাব?এত দিন সুস্থ থাকবো।এত লা'শ কাধে নিতে হবে?আমি কাজটা শুরু করেছিলাম শুধু মাত্র মানবিক কারণে ও আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য। এখন আমি আলোচিত হওয়ায় যারা তাদের দায়িত্ব পালনে ব্যার্থ হয়েছে তারা বি'ষেদাগার করছে।তবে তাতে আমি চিন্তিত না। কারণ আমা'র একমাত্র চাওয়া আল্লাহর কাছে। তিনি ন্যায় বিচারক। আমি নিয়ত যদি সঠিক হলে অবশ্যই তিনি আমা'র কাজ সহজ করে দিবেন, আমাকে রক্ষা করবেন।

তিনি আরো বলেন, কিছু কিছু লোক অযথাই নির্বাচন আমাকে ও মেয়রকে নিয়ে তাল বেতাল পাকাচ্ছে।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ঘেঁটে জানা গেছে, খোরশেদকে নিয়ে নিজ দলের চেয়ে আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা একটু বেশী উৎসাহ দিচ্ছে। তবে এ উৎসাহ দিতে গিয়ে খোরশেদকে বানানোর প্রচেষ্টা চলছে অনেকের স'ঙ্গে। কদাচিৎ খোরশেদকে ‘মেয়র’ হিসেবে দেখতে চাই পোস্ট দিয়ে আওয়ামী লীগের অনেক সিনিয়র নেতারা তাদের দৈন্যদশাকেই প্রকাশ করেছে অনুমেয় মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

খোরশেদের বড় পরিচয় তিনি বিএনপির একজন সাচ্চা ত্যাগী নি'র্যাতিত নেতা। মহানগর যুবদলের সভাপতি। টানা তিনবারের নির্বাচিত কাউন্সিলর। করো'না ইস্যুতে নিজ নির্বাচনী ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রতিপক্ষ তো দূরে থাক অনেক রাঘববোয়াল নেতারাও খোরশেদের মত ঝুঁকির কাজ করতে পারেনি।

খোরশেদের বেশ কয়েকজন ঘনিষ্ঠজন বলেন, ‘ইতোমধ্যে অর্ধশতের কাছাকাছি লা'শ দা'ফন ও সৎকার করা হয়েছে। হিন্দুদের দাহ করার সময়ে পরিবারের পরিজন থাকার নিয়ম থাকলেও অনেক ঘটনায় কেউ ছিলেন না। তখন তাদের কাছে হাজির হন খোরশেদ। সেইসব পরিবার ইতোমধ্যে খোরশেদকে তাদের কাছে আশীর্বাদ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন।

মূলত এসব কারণেই খোরশেদ এখন সবার মুখে মুখে। সে কারণেই এলাকার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রতিপক্ষ তো বটেই রাজনৈতিকভাবেও যারা ছিলেন শত্রু তারাও ভেতর ভেতর প্রশংসা ছুড়লেও দৃশ্যমান অবশ্য তেমন কিছু বলেনি। অথচ খোরশেদের রাজনৈতিক ময়দান সব সময়ে ছিল প্রতিকূলতায়।

নিজ দলে করো'না নিয়ে প্রশংসিত না হলেও সাধারণ মানুষের কাছে খোরশেদ এখন ‘আস্থার’ প্রতীক। সবার মুখে মুখে যখন তাঁর নাম তখন খোরশেদকে রাজনৈতিকভাবেও ব্যবহারের অ'ভিযোগ উঠেছে অনেকের বিরু'দ্ধে। চেষ্টা চলছে খোরশেদের অর্জন তাদের নিজেদের ঝুলিতে নেওয়ার জন্য। আবার কেউ চেষ্টা করছেন মেয়রের স'ঙ্গে প্রকাশ্য একটি বিরোধের চেষ্টা করতে। ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ বি'ষয়টি এগিয়ে গেছে অনেকদূর।

গত ২৯ এপ্রিল সিটি করপোরেশনের নগর ভবন প্রা'ঙ্গনে ব্রিফিংয়ে সকল কাউন্সিলরদের এ করো'নায় কাজ করার কথা তুলে ধরেন মেয়র আইভী। কিন্তু তিনি খোরশেদের নাম উচ্চারণ করেনি ইস্যু বানিয়ে তৈরি হয় লংকাকান্ড। সকলের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া হয় আইভী প্রতিহিংশাবশত নাম নেয়নি।

কিন্তু আইভীর ঘনিষ্ঠজনেরা বলছেন, ‘আইভীর কাছে সকল কাউন্সিলর সমান। সে কারণে একটি অনুষ্ঠানে তিনি নাম ধরে কোন কাউন্সিলরের কথা বলতে পারেন না। বললে অন্যরা উৎসাহ হারাবেন। কিন্তু এর আগে দুটি গণমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্যে খোরশেদের ঠিকই প্রশংসা করেন আইভী।’

প্রথম আলো, ডেইলি স্টার ও নিউজ নারায়ণগঞ্জকে তখন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের কর্মকান্ড প্রস'ঙ্গে মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ‘খোরশেদ খুব ভালো কাজ করছে। আমি তার তারিফ করি। আমি আশা করি ভবি'ষ্যতেও সে এ ধরনের কাজ করবে। আমর'া সিটি করপোরেশন থেকে তাকে সহযোগিতা করছি। সে যখন যা চাচ্ছে, তাকে সা'পোর্ট দিতে চেষ্টা করছি।’

নারায়ণগঞ্জে করো'না ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃ'দ্ধির পরেই প্রথমবারের মত হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করে গণমাধ্যমে আলোচনায় চলে আসেন খোরশেদ। ক্যামিস্ট বন্ধুদের সহযোগিতায় উপকরণ ক্রয় করে ৩০ হাজার হ্যান্ড স্যানিটাইজার যখন তৈরির উদ্যোগ নেন তখন নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন এসে তাঁর কাছ থেকে কৌশল র'প্ত করতে ভীড় করেন। নিজ কার্যালয়ে বিতরণের পর ওয়ার্ডের সবগু'লো এলাকাতে নিজ উদ্যোগে বাড়ি বাড়ি হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ শুরু হয়।

এরই মধ্যে ঘোষণা দেন নারায়ণগঞ্জে করো'না উপসর্গ কিংবা এ রোগে কেউ আ'ক্রা'ন্ত হয়ে মৃ'ত্যুবরণ করলে দা'ফনের ব্যবস্থা করবেন ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের। করো'নার কারণে যখন কেউ লা'শ ছুতে যায়না তখন খোরশেদ টিম নিয়ে হাজির হচ্ছেন সেখানে। সিড়ির মধ্যে পড়ে ছিল লা'শ, খাটে পড়া লা'শ, অটো রিকশায় নিথর দে'হ উ'দ্ধার করেন এ খোরশেদ।

সারাদেশ তো বটেই প্রবাসেও বি'ষয়টি আলোচনায় চলে আসে। গা শিউরে উঠা দৃশ্যে কেউ খোরশেদকে স্যালুট জানাতে ভুলে করেনি। প্রশংসায় ভাসতে থাকেন খোরশেদ। কিন্তু তিনি একবারও চিন্তা করেনি এ করো'না একটি সংক্রা'মন রোগ। তার পরেও ঘোষণা মোতাবেক স্ত্রী আর প্রিয় সন্তানদের মায়া বাদ দিয়েই ঝুঁকি নিয়ে লা'শ দা'ফন কাফন করেন।

এসব প্রপাগান্ডা অ'পপ্রচারে কিছুটা ভাবিয়ে তুলে খোরশেদকে। অনেকেই বলতে থাকেন, ‘ভালো কাজ করেও বিতর্ক সৃষ্টি করা হচ্ছে।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
News Bulletin © All rights reserved 2021
Develper By ITSadik.Xyz