1. [email protected] : admi :
  2. [email protected] : admin admin : admin admin
  3. [email protected] : atayur :
  4. [email protected] : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
  5. [email protected] : News Reporter :
যত দিন করোনা থাকবে তত দিন মৃতদেহের গোসল করাবেন রোজিনা
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১০:৪০ অপরাহ্ন

যত দিন করোনা থাকবে তত দিন মৃতদেহের গোসল করাবেন রোজিনা

Desk Report
  • Update Time : শুক্রবার, ৮ মে, ২০২০
  • ১২৯২ Time View

করো'নার ভয়ে স্বজনেরাও লা'শ ধরছেন না। প্রতিবেশীরাও কেউ এগিয়ে আসছেন না। ঘণ্টার পর ঘণ্টা লা'শ পড়ে থাকছে বাড়িতে ও সড়কের সামনে। বি'ষয়গু'লো নাড়া দেয় নারী জনপ্রতিনিধিকে। সেই চিন্তা থেকে লা'শের গোসল করাতে উদ্যোগী হন নারী ইউপি সদস্য রোজিনা আক্তার।

আগে কখনো লা'শ গোসলের অ'ভিজ্ঞতা না থাকলেও ইতিমধ্যে শিখে নিয়েছেন নিয়মর'ীতি। ইতিমধ্যে করো'নায় আ'ক্রা'ন্ত হয়ে মা'রা যাওয়া দুই নারীসহ ছয়জনের লা'শের গোসল করিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজে'লার এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সংরক্ষিত ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে নারী সদস্য। যত দিন করো'না থাকবে, তত দিন মৃ'তদে'হের গোসল করানোর কাজ চালিয়ে যাব'েন বলে জানান তিনি।

রোজিনা বলেন, করো'নার কারণে বিভিন্ন স্থানে লা'শ পড়ে থাকার বি'ষয়টি তাঁকে নাড়া দেয়। তিনি তাঁর ফেসবুক আইডিতে ঘোষণা দেন, করো'নায় আ'ক্রা'ন্ত হয়ে মা'রা যাওয়াসহ নারীদের লা'শ দা'ফনে গোসল করাবেন তিনি। ফেসবুকের তাঁর ওই স্ট্যাটাস দেখে গত ২৫ এপ্রিল সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর (যিনি করো'নায় আ'ক্রা'ন্ত হয়ে মা'রা যাওয়া ব্যক্তির লা'শের দা'ফন ও সৎকারে আলোচিত) মাকসুদুল আলম তাঁকে ফোন দেন করো'নায় আ'ক্রা'ন্ত হয়ে মা'রা যাওয়া এক নারীর লা'শ গোসল করানোর জন্য। গত ২৬ এপ্রিল তিনি প্রথম শহরের আমলাপাড়া এলাকায় করো'নায় আ'ক্রা'ন্ত হয়ে মা'রা যাওয়া ওই নারীর লা'শের গোসল করান। তাঁকে সহযোগিতা করেন মাসদাইর কবরস্থানের গোসলের দায়িত্বে থাকা মণি আক্তার। পরে কাউন্সিলর মাকসুদুল আলমের তত্ত্বাবধানে মাসদাইর কবরস্থানে লা'শ দা'ফন করা হয়।

ওই দিন পশ্চিম মাসদাইর এলাকায় ডায়াবেটিসে এক নারীর মৃ'ত্যু হয়। তিনি ওই নারীর গোসল করান। এরপর ৩ মে একই দিনে তিন নারীর মৃ'ত্যু হয়। ‍এ ছাড়া শহরের চারারগোপ এলাকার আরও এক নারীর মৃ'ত্যু হলে মৃ'তদে'হের গোসল দেন তিনি।

রোজিনা আক্তার বলেন, লা'শ গোসল করানোর আগে সুরক্ষাসামগ্রী (গাউন, হ্যান্ড গ্লাভস, মাস্ক, ক্যাপ ও বুটজুতা) পরে ধ'র্মীয় রীতি অনুযায়ী গোসল করানো হয়। গোসল করানো শেষে পিপিই আগু'নে পুড়িয়ে ফেলা হয়। তাঁকে এনায়েতনগর ইউপি চেয়ারম্যান দুটি পিপিই, স্থানীয়ভাবে এক জোড়া গামবুট দেওয়া হয়। এখন অনেকেই তাঁকে ব্যক্তি উদ্যোগে সুরক্ষা সরঞ্জাম সরবরাহ করছেন।

এ ব্যাপারে জে'লা করো'নাবি'ষয়ক ফোকাল পারসন সদর উপজে'লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘তাঁরা পিপিই ব্যবহার করে লা'শের গোসল করাচ্ছেন। যেহেতু তাঁরা স্বেচ্ছাসেবকের কাজ করছেন, আমর'া নির্দিষ্ট সময় পরপর তাঁদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছি ও করব।’

সদর উপজে'লা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক বলেন, ‘মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ইউপি সদস্য রোজিনা। গর্ব করার মতো কাজ করে চলেছেন। তাঁর এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।’

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
News Bulletin © All rights reserved 2021
Develper By ITSadik.Xyz